,

সিলেটের দুদক কর্মকর্তার বিরুদ্ধে হাইকোর্টে রোল

court high

নিউজ ডেস্ক: সিলেটের বহুল আলোচিত দুদকের উপসহকারী পরিচালক রনজিত কর্মকারের বিরুদ্ধে কোটি টাকার ক্ষতিপূরণ আদায় সহ শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেয়া হবে না কেন? মর্মে সোমবার হাইকোর্টে একটি রোলনিশি জারি করা হয়েছে।

২ সপ্তাহের মধ্যে দুদকের চেয়ারম্যানসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে লিখিত জবাব দাখিলেরও নির্দেশ প্রদান করে মহামান্য হাইকোর্ট।

সিলেট জোনাল সেটেলমেন্ট অফিসের সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার বদরুল আলম চৌধুরীর দায়ের করা রিট মামলায় (২৩১৯/২০১৭) বিচারপতি কাজী রেজা উল হক ও বিচারপতি মোহাম্মদ উল­াহ দ্বৈত বেঞ্চ উপরোক্ত আদেশ প্রদান করেন।

দুদকের লিখিত জবাব দাখিলের পর আগামী ২১ মার্চ আদালত আবার শুনানী গ্রহণ করে পরবর্তী নির্দেশনা দেবে বলেও আদেশে জানিয়েছেন। সহকারী সেটেলমেন্ট অফিসার বদরুল আলম চৌধুরী কে বিনা মামলা ও বিনা ওয়ারেন্টে সিলেট আলমপুরস্থ জুনাল অফিসে কর্মরত অবস্থায় ১৯ অক্টোবর ২০১৬ ইং তারিখে দুদকের উপসহকারী পরিচালক রনজিত কুমার কর্মকার আটক করে কোম্পানীগঞ্জ থানার একটি কথিত মামলায় ফরওয়ার্ডিং দিয়ে কারাগারে প্রেরণ করেন।

২৪ অক্টোবর সিলেটের চীপ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক কাজী আব্দুল হান্নান প্রকাশ্যে আদালতে কোম্পানীগঞ্জ থানার দুদকের ফরওয়ার্ডিং এ উলে­খিত ২৩নং মামলা তিনির আদালতে বিচারাধীন ও  এ মামলায় বদরুল আলম চৌধুরী নামের কোন আসামীর অস্থিত্ব নেই বলে আদেশ দিয়ে বলেন গ্রেফতারকৃত বদরুল আলম চৌধুরীকে অবিলম্বে মুক্তি দেয়া হোক।

আদালতের ৩৫নং আদেশে ২৬ অক্টোবর ২০১৬ তারিখে ১ম শ্রেণীর সরকারি কর্মকর্তা বদরুল আলম চৌধুরী কারাগার থেকে মুক্তি পান। দুদকের এসব বেআইনী কর্মকান্ডকে চ্যালেঞ্জ করে বদরুল আলম চৌধুরী হাইকোর্টে রিট করেন। সোমবার হাইকোর্টে রিট মামলার শুনানীতে অংশগ্রহণ করেন এড. দিদার আলম কলে­াল ও এড. রফিকুল হাসান।

     More News Of This Category

ফেসবুকে আমরা

Archive Calendar

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com