,

ফুলতলী সমর্থক কর্তৃক হামলা : ১২ ঘন্টার মধ্যে সমাধান চান কওমীর আলেমরা

81885

নিউজ  ডেস্ক : সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার খাদিমুল ইসলাম পরিষদ আয়োজিত ৩ দিনব্যাপী তাফসির মাহফিলের ২য় দিন গত ২৭ ফেব্রুয়ারী সোমবার ‘ফুলতলী সমর্থক কর্তৃক মাহফিলে অতর্কিত হামলার প্রতিবাদ ও মুসল্লি হত্যাকারীদের’ শাস্তির দাবীতে বুধবার বাদ জোহর সিলেট নগরীর কোর্ট পয়েন্টে এক বিশাল প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

ইত্তেহাদে আহলে সুন্নত ওয়াল জামাত সিলেটের আহবায়ক মুফতী আবুল কালাম জাকারিয়ার সভাপতিতে এবং যুগ্ম সদস্য সচিব অধ্যক্ষ হাফিজ আব্দুর রহমান সিদ্দিকী ও সদস্য মাওলানা এমরান আলমের যৌথ পরিচালনায় প্রতিবাদ সভায় বক্তারা বলেন, ‘‘শান্তিপূর্ণ তাফসির মাহফিলে হামলাকারীরা পবিত্র কুরআনের দুশমন। বাংলাদেশ হক্কানী আলেম-উলামার দেশ। এদেশে কোন বেদাতী-ভন্ডদের স্থান নেই। তাফসির মাহফিলে হামলাকারীরা ইহুদী-নাছারাদের দোষ। এরা জঙ্গিদের চেয়ে ভয়ংকর। এদের বিরুদ্ধে কঠোর আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। বক্তারা আগামী ১২ ঘন্টার মধ্যে হামলাকারীদের গ্রেফতার করতে ব্যর্থ হলে সিলেটের আলেম সমাজ কঠোর কর্মসূচী দিতে বাধ্য হবে বলে হুশিয়ারী উচ্চারণ করেন।’’

সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ইত্তেহাদে আহলে সুন্নত ওয়াল জামাত সিলেটের প্রেসিডিয়াম সদস্য সোবহানীঘাট মাদরাসার মুহতামীম মাওলানা শফিকুল হক আমকুনী, শায়খুল হাদীস মুফতী মুহিব্বুল হক গাছবাড়ী, ভার্থখলা মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা হাফিজ মজদুদ্দীন আহমদ, রেঙ্গা মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা মুহিউল ইসলাম বুরহান, দারুস সালাম মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা ওলীউর রহমান, সংগঠনের যুগ্ম আহবায়ক মাওলানা রেজাউল করিম জালালী, সদস্য সচিব বন্দরবাজার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতিব মাওলানা মুশতাক আহমদ খান।

প্রস্তাবনা পেশ করেন মাওলানা আবুল হাসান ফয়সল। বক্তব্য রাখেন কাজিরবাজার মাদরাসার মুহাদ্দিস মাওলানা আব্দুস সোবহান, দারুল কুরআন সিলেটের শায়খুল হাদীস মাওলানা আতাউর রহমান, মাওলানা মাশুক আহমদ সালামী, কোরআন শিক্ষা বোর্ডের পরিচালক মাওলানা মুজ্জামিল হোসেন চৌধুরী, মাওলানা সিরাজুল ইসলাম সিরাজী, মাওলানা খলিলুর রহমান, মাওলানা আব্দুল আজিজ, অধ্যক্ষ জাহিদ উদ্দিন চৌধুরী, প্রিন্সিপাল মাওলানা মাহমুদুল হাসান, মাওলানা গাজী রহমত উল্লাহ, মাওলানা আসরারুল হক, মাওলানা শাহ মমশাদ আহমদ, গহরপুর মাদরাসার মুহতামিম মুছলেহ উদ্দিন রাজু, দারুল উলুম সিলেটের মুহতামীম মাওলানা আব্দুল মালিক চৌধুরী, আব্দুল হান্নান তাফাদার, পীর আব্দুল জব্বার, মাওলানা নজমুদ্দীন কাসেমী, মুফতী ফয়জুল হক জালালাবাদী, মুফতী শামসুল ইসলাম, মাওলানা শামসুদ্দিন মুহাম্মদ ইলিয়াস, মাওলানা আহমদ ছগির, মাওলানা খলিলুর রহমান, প্রিন্সিপাল মাওলানা নাসির উদ্দিন, মুফতী রশিদ আহমদ, মাওলানা নজরুল ইসলাম, মাওলানা আলী নূর, ক্বারী সিরাজুল ইসলাম, মাওলানা নূর আহমদ কাসেমী, মাওলানা নাঈম উদ্দিন, মাওলানা আরিফুল হক ইদ্রিস, মাওলানা জয়নুল ইসলাম, মাওলানা রুহুল আমীন নগরী, মাওলানা ছদরুল আমীন, মাওলানা সাইফুর রহমান, কাজী জুনায়েদ, মাওলানা সালেহ আহমদ শাহবাগী, হাফিজ শাব্বির আহমদ রাজি, সাদিক সালিম, মাওলানা তোফায়েল আহমদ উসমানী, এম. বেলাল আহমদ চৌধুরী, মাওলানা লুৎফুর রহমান, কাজী আমিন উদ্দিন, মাওলানা এহতেশামুল হক কাসেমী, আমীন আহমদ রাজু, মাওলানা জহুরুল হক, মাওলানা আব্দুর রহিম, মাওলানা রমিজ উদ্দিন, মাওলানা নুরুল হক নোমানী, মাওলানা নাজিম উদ্দিন, মাওলানা আরশাদ খান আল হাবিব, মাওলানা মুজাহিদুল ইসলাম, হাফিজ মনছুর বিন সালেহ, মাওলানা শাখাওয়াত শিকদার, মাওলানা আব্দুস সালাম, মাওলানা রিয়াজ আল মামুন, মাওলানা ফয়জুল ইসলাম, মাওলানা আবু খয়ের প্রমুখ।

সমাবেশে প্রস্তাবনাবলীতে তুলে ধরা হয়- ১. ছাতকের তাফসির মাহফিলে হামকারী সন্ত্রাসীদের ধিক্কার ও নিন্দা জানিয়ে অবিলম্বে তাদেরকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী। ২. ছাতকে খাদিমুল ইসলাম আয়োজিত তাফসির মাহফিলে হামলা করে ভাংচুরের ক্ষতিপূরণ সহ নিহত ও আহতদের ক্ষতিপূরণ আদায়ে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি জোর দাবী জানান, ৩. ভাংচুরকৃত সম্মেলনকে পুনরায় নির্মাণ করতঃ সেই স্থানে সম্মেলন করার শান্তিপূর্ণ পরিবেশ সৃষ্টি করে দিতে প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধির নিকট জোর দাবী, ৪. ভবিষ্যতে আর কোন দোন এ ধরনের হামলার পুনরাবৃত্তি না ঘটে সে ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অঙ্গিকারাবদ্ধ হওয়ার দাবী জানান। ৫. প্রতিবাদ সমাবেশ সফল ও সার্থক করায় আলেম-উলামা ও প্রশাসনকে সংগঠনের পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানানো হয়।

সিলেটের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে মিছিল সহকারে প্রতিবাদ সমাবেশে যোগ দেয়ায় কোর্ট পয়েন্টে সমাবেশ বিশাল সমাবেশে পরিণত হয়।

     More News Of This Category

ফেসবুকে আমরা

Archive Calendar

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  
Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com