,

যে কারণে কারাগারে শুধু কেঁদেই যাচ্ছে ভারতের বিতর্কিত গুরু রাম সিং

untitled-13-650_3

নিউজ ডেস্ক : কারাগারে শুধু কেঁদে যাচ্ছে ধর্ষণের দুই মামলায় বিশ বছরের কারাদণ্ড পাওয়া ভারতের বিতর্কিত গুরু রাম রহিম সিং। বিষয়টি জানায় জেলের অপর এক কয়েদি। এদিকে টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবরে বলা হয়েছে জেলে কোন ভিআইপি সুবিধা পাবেন না গুরমিত রাম রহিম সিং।

হরিয়ানার রোহতাক জেলে বর্তমানে কারাভোগ করছেন রাম রহিম। তিনি তার কথিত মেয়ে হানিপ্রীতকে সাথে রাখার জন্য জেল কর্তৃপক্ষের কাছে দাবি জানিয়েছিলেন। হানিপ্রীত ‘আকুপ্রেশার বিশেষজ্ঞ’ বলে জানিয়েছিলেন রাম রহিম। তার তীব্র পিঠের ব্যথায় মেয়ের সেবা দরকার বলে জানিয়েছিল। কিন্তু জেল কর্তৃপক্ষ তার আবেদনে সাড়া দেয়নি।

জেলের বাইরে বিশেষ সুযোগ সুবিধা ও বিশেষ নিরাপত্তা পেলেও কারাগারে ভিআইপি সুবিধা পাচ্ছেন না রাম রহিম।

দুই শিষ্যকে ধর্ষণের দায়ে ২০ বছর কারাভোগ করতে হবে বিতর্কিত এই ধর্মগুরুকে। নিজের দত্তক নেয়া কন্যা হানিপ্রীতের সঙ্গেও ছিল অবৈধ যৌন সম্পর্ক। আর সেই কন্যাকে নিয়েই নাকি কারাবাসের আবদার করেছেন এই ধর্ষক।

জানা গেছে, ২০০৯ সালে হানিপ্রীতকে দত্তক নেন রাম রহিম। অভিযোগ উঠেছে ওই পালিত কন্যার সঙ্গেও নাকি যৌন সম্পর্ক ছিল ধর্ষণের দায়ে সাজাপ্রাপ্ত ধর্মগুরু রাম রহিমের। রাম রহিমের বিরুদ্ধে ২০১১ সালে এই গুরুতর অভিযোগ করেছিলেন জামাতা বিশ্বাস গুপ্তা। তার অভিযোগ ছিল, পালক কন্যা হানিপ্রীতের সঙ্গে যৌন সম্পর্ক রয়েছে ডেরা সাচ্চা সৌদার প্রধানের। নিজের পাপ ঢাকতে তাকে দত্তক নিয়েছিলেন রাম রহিম।

বিশ্বাস গুপ্তার দাবি, ২০১১ সালে একবার তিনি আশ্রমে বাবার অন্দরমহলে গিয়েছিলেন। দরজা খোলা ছিল। উঁকি মেরে দেখতেই স্তম্ভিত হয়েছিলেন। আপত্তিকর অবস্থায় ছিলেন রাম রহিম ও হানিপ্রীত।

 

     More News Of This Category

ফেসবুকে আমরা

Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com