,

রোহিঙ্গাদের পাশে থাকার ঘোষণা দিলেন প্রধানমন্ত্রী

PM

সিলেট মিডিয়া ডেস্ক : কক্সবাজারের উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা শিবির পরিদর্শনে গিয়ে সেখানে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গা শরণার্থীদের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একই সঙ্গে নিজ দেশে ফিরে যাওয়ার আগ পর্যন্ত রোহিঙ্গাদের পাশে থাকবেন বলেও ঘোষণা দিয়েছেন তিনি।

মঙ্গলবার কক্সবাজারের উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনের আগে এক সংক্ষিপ্ত ভাষণে তিনি এ ঘোষণা দেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘রোহিঙ্গারা জীবনের ভয়ে, নির্যাতন থেকে বাঁচতে বাংলাদেশে এসেছে। আমরা যথাসম্ভব তাদের পাশে থাকবো। আন্তর্জাতিকভাবে রোহিঙ্গাদের পক্ষে সমর্থন আদায়েও আমরা চেষ্টা অব্যাহত রাখছি।’

এসময় রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীকে মিয়ানমারে ফেরত নিতে দেশটির সরকারের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘রোহিঙ্গাদের দিকে তাকিয়ে আমরা ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের কথা স্মরণ করছি। তখন প্রতিবেশী দেশ ভারতে আমাদের অনেক বাঙালি আশ্রয় নিয়েছিল। ভারত সরকার বাঙালি শরণার্থীদের তখন সাধ্যমতো সহায়তা করেছিল। তাই মানবিক দিক বিবেচনা করে আমরাও রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়েছি। আমাদের সামর্থ অনুযায়ী সাহায্য করছি।’

রোহিঙ্গাদের জন্য বরাদ্দকৃত মালামাল যেন বিশেষ কোনও মহলের ভোগে না যায় সেজন্য কমিটি করে দেয়া হয়েছে বলেও জানান সরকারপ্রধান।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘আমরা আশা করবো মিয়ানমারের বিবেক জাগ্রহ হবে। তারা তাদের দেশের নাগরিকদের নিজ দেশে ফিরিয়ে নেবে। একজনের ভুলের মানুষ শত শত জীবনের বিনিময়ে কেন হবে? কেন লাখ লাখ মানুষকে বিনা অপরাধে সীমান্ত আর সাগর পাড়ি দিয়ে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে পরদেশে আশ্রয় নিতে হবে? আমরা শান্তি চাই। মিয়ানমারও সে পথেই অগ্রসর হোক।’

‘এদেশের ১৬ কোটি মানুষ খেয়ে-পরে বেঁচে আছে। আমরা ৫-৭ লাখ রোহিঙ্গাদেরও খাদ্য নিরাপত্তা দেবো- যতক্ষণ তারা দেশে ফিরে না যায়’- বলে প্রধানমন্ত্রী।

মুক্তিযুদ্ধের কথা স্মরণ করে বাংলাদেশের যুবক শ্রেণির প্রতি আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বর্তমান যুবক শ্রেণি বই-পুস্তকে মুক্তিযুদ্ধের কথা পড়েছে। আমরা দেখেছি- কতটা প্রতিকূল ছিল জীবন ও সময়। তাই বলবো- রোহিঙ্গাদের যেন কোনও কষ্ট না হয় দেশের যুবসমাজকে সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে।’

এর আগে মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ১১টায় প্রধানমন্ত্রী কুতুপালং শরণার্থী ক্যাম্পে পৌঁছেন। তখন তাঁর সঙ্গে ছিলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, পূর্ত মন্ত্রী মোশাররফ হোসেনসহ দলের শীর্ষ নেতা ও স্থানীয় প্রশাসনের কর্মকর্তারা।

এর আগে বেলা সোয়া ১০টার দিকে প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বিজি ১৯০৯ ফ্লাইটটি অবতরণ করে কক্সবাজার বিমানবন্দরে। বিমানবন্দরে অবতরণের পর সেখান থেকে সড়ক পথে উখিয়ার কুতুপালং শরণার্থী ক্যাম্পের উদ্দেশে রওনা হন প্রধানমন্ত্রী।

     More News Of This Category

ফেসবুকে আমরা

Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com