,
শিরোনাম
ঢাকাদক্ষিণ কলেজে বঙ্গবন্ধুর ছবি মাটিতে ফেলা নিয়ে উত্তেজনা মৌলভীবাজারে বারুদের তাপে খসে পড়ল পুলিশের আঙুল ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের নির্বাচন ফেব্রুয়ারীতে জন্মদিনে যা যা করলেন নন্দিত অভিনেত্রী শাবনুর হবিগঞ্জে আনসার সমাবেশ ও পুরস্কার বিতরণ আব্দুল বাসিত বরকতপুরীর জানাজা সম্পন্ন: মানুষের ঢল মাদ্রাসার ভূমিতে পাবলিক টয়লেট নির্মাণ নিয়ে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন: কঠোর কর্মসূচী আল আমিন জামেয়ায় হাফেজ নিয়োগ ও হিফজ বিভাগে ভর্তি চলছে সিলেট ক্যামব্রিয়ান স্কুল এন্ড কলেজে বিজয় দিবসের আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত দিরাইয়ে প্রেমিকের ছুরিকাঘাতে স্কুলছাত্রী খুন শাবিপ্রবি ইংরেজি বিভাগের বিজয় দিবস উদযাপন সিলেটের প্রবীণ আলেম বরকতপুরীর ইন্তেকাল : আলিয়া মাঠে জানাজা

দিরাই কলেজের অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ

ovijug

মুজাহিদুল ইসলাম সর্দার ,দিরাই প্রতিনিধি:  দিরাই ডিগ্রি কলেজের সদ্য নিয়োগ প্রাপ্ত ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ প্রদীপ কুমার দাসের বিরুদ্ধে সেচ্ছাচারিতা ও অনিয়মের অভিযোগ এনে ওই কলেজের ৬ জন শিক্ষক গত বৃহস্পতিবার দিরাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও কলেজ পরিচালনা পরিষদের সভাপতি তৌহিদুজ্জামান পাভেলের কাছে আর্থিক অনিয়ম ও সেচ্ছাচারিতার লিখিত অভিযোগ করেছেন্ । কলেজের সহকারী অধ্যাপক আ ন ম সোয়েব চৌধুরী, ধীমান কীর্ত্তুনীয়া, কামরুল কবীর, সন্দীপন দাস রনজিৎ কুমার দাস ও নিখিল কুমার দাস এ অভিযোগ দায়ের করেন, তাঁরা অভিযোগে উল্লেখ করেন, ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ প্রদীপ কুমার দাস দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে আদায়কৃত টাকা ব্যাংকে জমা না দিয়ে নিজের পকেটে রেখে সরকারী বিধি বিধানের তোয়াক্ষা না করে কলেজের টাকা খরচ করছেন, প্রতিমাসে স্টাফ মিটিং ডাকার নিয়ম থাকলে তিনি কোনো দিন মিটিং ডাকেননি।আমরা মিটিং ডাকতে অনুরোধ করলে তিনি আমাদের পাত্তা দেননি।তিনি শিক্ষকদের টিফিন বন্ধ করে দিলে ও নিয়মিত চা চিনির বিল করছেন,ব্যক্তিগত কাজে শ্যামারচর গিয়ে ১৫০০টাকা কলেজ থেকে নিয়েছেন,জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে কাগজ পত্র জমা দিতে গিয়ে ১২০০০ হাজার টাকা বিল করেছেন,সিলেট শিক্ষা বোর্ডে যাতায়াত বাবৎ একজন অফিস সহকারীকে ১৫০০ টাকা দিলে ও সিলেট শিক্ষা বোর্ডে যাতায়াত বাবৎএকজন শিক্ষকের জন্য সরকারী বরাদ্দ হলো মাত্র ৪৫০টাকা। ডিগ্রি দ্বিতীয় ও তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থীর কেন্দ্র ফি বাবৎ আদায়কৃত প্রায় ৩ লাখ টাকা ব্যাংকে জমা না দিয়ে নিজ হাতে রেখেছেন।কলেজ কর্তৃপক্ষকে তোয়াক্ষা না করে তিনি নিজের ইচ্ছামতো কলেজের টাকা খরচ করছেন । সকল প্রকার অভিযোগ অস্বীকার করে প্রদীপ কুমার দাস বলেন, আমি সবেমাত্র দায়িত্ব নিয়েছি,সরকারী বিধি অনুযায়ী আমি টাকা খরচ করছি, কিছু শিক্ষক নিজের ফায়দা হাসিলে ব্যর্থ হয়ে আমার মান সম্মান নষ্ট করতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন। কলেজের যাবতীয় কাজ পরিচালনা পরিষদ নিয়মিত তদারকি করছেন, ৩ জন শিক্ষক প্রতিনিধিও আছেন।

     More News Of This Category

ফেসবুকে আমরা

Archive Calendar

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০৩১
Facebook Auto Publish Powered By : XYZScripts.com