দাবি মানার আশ্বাসে পরিবহন ধর্মঘট স্থগিত

by salim

সিলেটমিডিয়াডেস্ক: নতুন সড়ক পরিবহন আইন স্থগিত করে সংশোধনের জন্য ডাকা অনির্দিষ্টকালের জন্য ধর্মঘট স্থগিত করা হয়েছে। বুধবার দিবাগত রাত পৌনে ১টার দিকে ধানমন্ডিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বাসভবনে পরিবহন মালিক-শ্রমিকদের সঙ্গে বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়। বৈঠক শেষে ধর্মঘট স্থগিতের ঘোষণা দেন বাংলাদেশ ট্রাক-কাভার্ড ভ্যান ও পণ্য পরিবহন মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক মো. রুস্তম আলী খান।

সংবাদ সম্মেলনে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘যে দাবিগুলো যৌক্তিক সেগুলোর জন্য আমরা সময় বেধে দিয়েছি। পাশাপাশি তাদের সঙ্গে একমত হয়েছি। ড্রাইভিং লাইসেন্স নিয়ে তাদের একটি সমস্যা ছিল। তাদের সেই দাবির প্রেক্ষিতে আমরা বলেছি, তারা এখন যেই লাইসেন্স দিয়ে গাড়ি চালাচ্ছেন, সেটি দিয়েই আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত গাড়ি চালাবেন। আগামী ৩০ জুনের মধ্যেই তাদের এ সংক্রান্ত সব কাজ শেষ করতে হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘গাড়ির ফিটনেসের বিষয় ও আইন সংশোধনীর বিষয়ে তারা আমাদের কাছে তাদের দাবি তুলে ধরেছেন। সেগুলো আমরা যোগাযোগ মন্ত্রীর কাছে পাঠাবো। তিনি সেগুলো দেখবেন।’

বৈঠকে নেওয়া সিদ্ধান্তে পরিবহন নেতারা সন্তুষ্ট উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘আমরা মনে করি, আমাদের বৈঠকে নেওয়া সিদ্ধান্তে তারা সন্তুষ্ট হয়েছেন এবং আমাদের সঙ্গে একমত হয়েছেন। তারা আমাদের আশ্বাসও দিয়েছেন যে আগামীকাল থেকে এই কর্মবিরতি তারা প্রত্যাহার করে নেবেন।’

বাংলাদেশ ট্রাক-কাভার্ডভ্যান পণ্য পরিবহন মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক রুস্তম আলী খান বলেন, ‘আমরা বৈঠকে আমাদের দাবিগুলো তুলে ধরেছেন। তারা আমাদের দাবি গুনেছেন এবং তারা নীতিগতভাবে মেনে নিয়েছেন, মন্ত্রীর কথায় আমরা কর্মবিরতি প্রত্যাহার করছি।’

বাংলাদেশ ট্রাক-কাভার্ডভ্যান পণ্য পরিবহন মালিক-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের যুগ্ম সদস্য সচিব তালুকদার মো. মনির বলেন, ‘আমরা কর্মবিরতির পক্ষে ছিলাম না, তবুও আমাদের শ্রমিকরা কর্মবিরতিতে চলে গেছেন। তাদের ঠেকাতে আমরা কর্মবিরতির ঘোষণা দিয়েছি। ‘

এর আগে, নতুন সড়ক পরিবহন আইন স্থগিতের ৯ দফা দাবিতে ঢাকাসহ সারাদেশে চলমান ধর্মঘট ও সংকট নিরসনে বাস, ট্রাক-কাভার্ডভ্যান পণ্য পরিবহন মালিক-শ্রমিক সমিতির নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে বসেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। বুধবার রাত ৯টার কিছু পর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ধানমন্ডির বাসভবনে এ বৈঠক শুরু হয়।

প্রসঙ্গত, সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮ আনুষ্ঠানিকভাবে ১ নভেম্বর থেকে কার্যকর হওয়ার কথা থাকলেও সচেতনতামূলক কার্যক্রম চালিয়ে গত রোববার থেকে প্রয়োগ শুরু হয়েছে। এর প্রতিবাদে উত্তর ও দক্ষিণের জেলাগুলোর মধ্যে খুলনা, সাতক্ষীরা, ঝিনাইদহ, নড়াইল, কুষ্টিয়া, মেহেরপুর ও রাজশাহীতে বাস চলাচল বন্ধ করে দিয়েছেন শ্রমিকরা।

Related Posts