লতিফ হত্যা: দণ্ডপ্রাপ্ত ২৬ আসামি খালাস

by sylhetmedia.com

মিডিয়া ডেস্ক: নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারের আবদুল লতিফ হত্যা মামলায় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত পাঁচ আসামি ও যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত ২১ আসামিকে খালাস দিয়েছেন হাইকোর্ট। সোমবার বিচারপতি আবু বকর সিদ্দিক ও বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলামের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ আসামিদের করা আপিল ও ডেথ রেফারেন্সের শুনানি শেষে এ রায় ঘোষণা করেন।

আদালতে আসামিদের পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার রাবেয়া ভূঁইয়া ও বাহাউদ্দীন আল রাজী। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মনিরুজ্জামান রুবেল ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল কাজী বজলুর রশিদ।

পরে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মনিরুজ্জামান রুবেল বলেন, আবদুল লতিফকে হত্যার ঘটনায় চাক্ষুষ সাক্ষী না থাকায় হাইকোর্ট আসামিদের খালাস দিয়েছেন। তবে হাইকোর্টের এই রায়ের বিরুদ্ধে আপিল করা হবে।

মামলার বিবরণে জানা গেছে, ১৯৯৮ সালের নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজার থানার মোরদাসাদী গ্রামের আব্দুল লতিফকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় একই দিন আড়াইহাজার থানায় মামলা করেন নিহতের ভাই আব্দুল হান্নান।

২০০৯ সালে নারায়ণগঞ্জের আদালত এই মামলায় পাঁচ আসামিকে মৃত্যুদণ্ড ও ২১ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন।

মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত পাঁচ আসামি হলেন- মো. বারেক, ওমর আলী, সোহেল ওরফে শফি, আফাজ উদ্দিন ও শওকত আলী। এর মধ্যে ওমর আলী মারা গেছেন।

যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন, শহীদ, হেলাল, নুর ইসলাম, ইউনুছ, কফিল উদ্দিন, মঞ্জুরুল, আফাজ উদ্দিন, আফসার উদ্দিন, আক্তার, আলাউদ্দিন, হক সাব, সামসুল হক, কামাল, কালাই, দেলোয়ার, আক্তার, হাচেন আলী, তাইজ উদ্দিন ও আলম।

পরে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামিদের ডেথরেফারেন্স হাইকোর্টে আসে। পাশাপাশি নিম্ন আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে আপিলও করেন আসামিরা।

আজ সোমবার আসামিদের করা ডেথ রেফারেন্স ও জেল আপিলের শুনানি হাইকোর্ট সব আসামিকে খালাস দেন।

Related Posts



cheap mlb jerseyscheap nfl jerseyscheap mlb jerseyscheap nhl jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseys