শাবি শিক্ষার্থীদের সাথে এলাকাবাসীর সংঘর্ষ

by sylhetmedia.com

নিউজ ডেস্ক: শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীদের সাথে এলাকাবাসীর সংঘর্ষে অন্তত ৮ জন আহত হয়েছেন। রোববার সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকে শাবি ছাত্রীকে ইভটিজিং এর জেরে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় উভয় পক্ষের মধ্যে ধাওয়া ও পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।
ক্যাম্পাস সূত্র জানায়, রবিবার সন্ধ্যায় বিশ^বিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের একটি ফ্লেক্সিলোড দোকানে শাবি ছাত্রী যায়। সে সময় সেখানে উপস্থিত এলাকার লিমন ও মোস্তাক নামে দুই বহিরাগত ঐ ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করে। বিষয়টি ঐ ছাত্রী তার পরিচিত কয়েকজনকে জানালে তারা লিমন ও মোস্তাকের সাথে কথা বলতে যান। কথা বলার এক পর্যায়ে মোস্তাক এক শিক্ষার্থীকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে ও গালিগালাজ করে। পরে বিষয়টি হাতাহাতি ও সংঘর্ষে রুপ নেয়।
এ ঘটনার প্রতিবাদে সাধারণ শিক্ষার্থীরা সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়ক এক ঘণ্টা যাবৎ অবরোধ করে রাখে। পরে এলাকাবাসীরা অর্ধ শতাধিক ককটেল ফোটায়। এ সময় উভয় পক্ষ থেকে ইট ও ঢিল ছোড়াছুঁড়ির ঘটনা ঘটে।
পরবর্তীতে ঘটনাস্থলে জালালাবাদ থানার পুলিশ এসে ৫২ রাউন্ড রাবার বুলেট ছুঁড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে বলে জানান ওসি আক্তার হোসেন। তিনি আরও বলেন, পরিস্থিতি মোকাবেলায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। তবে এখন পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।
এ সময় বিশ^বিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আমিনুল হক ভূইয়া ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে শিক্ষার্থীদের শান্ত করেন। তবে সাধারণ শিক্ষার্থীরা ‘মোস্তাক ও লিমনের গ্রেফতার ও উপযুক্ত শাস্তি’র দাবি জানান।
ঘটনার সময় শাবি শিক্ষার্থীদের দ্বারা পরিচালিত একটি রেস্টুরেন্ট এলাকাবাসী ভেঙ্গে ফেলে বলে অভিযোগ করেন শিক্ষার্থীরা। এ সময় তারা নগদ ৪০ হাজার টাকাও লুট করে এবং ৫ লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট করে বলে জানান তারা। এ সময় রেস্টুরেন্টে খাওয়া অবস্থায় শাবি শিক্ষার্থীদের উপর হামলা করে অন্তত ৮জনকে আহত করে। আহতদের মধ্যে গুরুতর আহত ২ জনকে তাৎক্ষণিকভাবে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
সাধারণ শিক্ষার্থীদের কয়েকজন বলেন, ‘আমরা বিশ^বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। তারা আমাদের সাথে যে আচরণ করেছে ও ইটপাটকেল-ককটেল মেরেছে তা কোনোভাবেই কাম্য নয়।’
তবে, অভিযুক্ত মোস্তাক ও লিমন ইভটিজিং এর বিষয়টি অস্বীকার করেন। তবে লিমন দাবি করেন, ঘটনার সময় শাবির শিক্ষার্থীরা এলাকার মুরব্বিদের সাথে বেয়াদবি করেন। এসময় এটার প্রতিবাদ করা হয় বলে জানান তিনি।
ঘটনাস্থল পরিদর্শনে আসেন সিলেট মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি বদর উদ্দীন আহমেদ কামরান। তিনি উত্তেজিত শিক্ষার্থীদের শান্ত করেন এবং সুষ্ঠু বিচারের আশ্বাস দেন।
শাবির ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর ড. মুনশী নাসের ইবনে আফজাল জানান, ভুক্তভোগীদের লিখিত অভিযোগের প্রেক্ষিতে এলাকার বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ ও পুলিশ প্রশাসনের সাথে কথা বলে পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে।

Related Posts



cheap mlb jerseyscheap nfl jerseyscheap mlb jerseyscheap nhl jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseyscheap jerseys